মহাসড়কে সিএনজি অটোরিকশা আটককে কেন্দ্র করে তুলকালাম কাণ্ড, গুলিবিদ্ধ ২

IMG_20180427_033729.jpg

মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় দোহাজারী হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়ক থেকে দু’টি সিএনজি অটোরিকশা আটক করাকে কেন্দ্র করে চালকরা হাইওয়ে থানা ঘেরাউ করার চেষ্টা করলে পুলিশের সাথে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হাইওয়ে পুলিশের গুলিতে ২ সিএনজি অটোরিকশা চালক গুলিবিদ্ধ হয়েছে। ঘটনার পর থেকে অটোরিকশা চালকরা উপজেলার মূল অভ্যান্তরিণ সড়কে গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। এতে হাজার হাজার যাত্রী সিমাহীন দুর্ভোগে পড়েন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২জনকে আটক করেছে। এছাড়া চালকদের ইট-পাটকেলের ছোড়ায় এক সহকারী উপপরিদর্শকসহ ৬ পুলিশ আহত হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। গত ২৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াই উপজেলার কালিয়াইশ কাঠগড় এলাকায় মহাসড়কে এঘটনা ঘটে। এঘটনার প্রতিবাদে ওইদিন সন্ধ্যায় চালকরা কেরানীহাট এলাকায় মহাসড়কে প্রতিবাদ মিছিল বের করে প্রদক্ষিণ করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় দোহাজারী হাইওয়ে থানার পুলিশ কেরানীহাট নিজাম উদ্দিন পাম্প থেকে দুটি সিএনজি অটোরিকশা আটক করে। আটক গাড়িগুলো থানায় নেয়ার পথে কয়েক জন চালক বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করে। এরপর অটোরিকশা চালকরা গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দিয়ে মহাসড়কে গাড়ি নিয়ে বিক্ষোভ করে হাইওয়ে পুলিশের গালে গালে, জুতা মারো তালে তালে ¯েøাগান দিয়ে মৌলভির দোকান এলাকায় শ্রমিকরা অর্ধশত সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে জড়ো হয়। পরে দুপুর আড়াইটার দিকে মিছিল সহকারে শ্রমিকরা দোহাজারী হাইওয়ে থানা ঘেরাউ করার চেষ্টা করলে কাঠগড় সোহাগ কমিউনিটি সেন্টার এলাকায় পুলিশ বাঁধা দেয়। এতে সিএনজি চালকরা ইট-পাথর ছুড়লে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাদের লক্ষ করে গুলি ছুড়ে। এতে মো. ফরিদুল আলম (৪) ও শফিকুল ইসলাম (২৮) নামের দুই চালক গুলিবিদ্ধ হয়। এসময় দোহাজারী হাইওয়ে থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শাহ আলম, কনস্টেবল নারায়ন চন্দ্র, মো. রুবেল, মো. রাজু শেখ, সালেহ নুর ও মোবারক হোসেন। ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মো. ইউচুপ ও শহিদুল ইসলাম নামের দুই চালককে আটক করে। সাতকানিয়া রাস্তার মাথা সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম বলেন, হাইওয়ে পুলিশ অভ্যান্তরিণ সড়ক থেকে দুইটি সিএনজি অটোরিকশা করে থানায় নিয়ে গিয়ে টাকা দাবি করে। তাই প্রতিবাদ করতে গেলে পুলিশ চালকদের উপর গুলি ছুড়ে। এতে অনেকেই গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দোহাজারী হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান বলেন, কেরানীহাট এলাকা থেকে দুইটি সিএনজি অটোরিকশা আটক করে থানায় নিয়ে আসতে চাইলে প্রথমে চালকরা নিউমার্কেট এলাকায় পুলিশকে বাঁধা দেয়। পরে থানা ঘেরাউ করে শ্রমিকরা হামলা করে এবং দায়িত্বর পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে পুলিশ আত্ম রক্ষার্থে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে। চালকদের হামলায় আমাদের ৬ পুলিশ আহত হয়েছে। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Top