কাশিয়ানীতে বর্ষবরণ উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী বাউল গানের আসর।

30727218_2112267242337857_3786324760200216576_n.jpg

প্রসীদ কুমার দাস, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার হাতিয়াড়া ইউনিয়নের রাহুথর গ্রামে বর্ষবরন উপলক্ষে রাহুথড় বটতলা ক্লাবের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী মাটির গান, ভালোলাগার গান ভালোবাসার বাউল গানের আসর।

বাঙালী জাতি গান প্রেমী। হোক তা জারি, সারি,ভাটিয়ালি আর বাউল। খাদ্য, বস্ত্রের ন্যায় গান ও আমাদের জিবনের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। বাংলার মানুষ গাইতে ভালোবাসে, ভালোবাসে মাটির গান শুনতে। এদেশের কৃষক ভাইদের হাতে থাকে কাজ মুখে থাকে গান।

কিন্তু বর্তমান সময়ে পশ্চিমা গানের সুরের স্রোতে নিজেদের ভাসিয়ে দিয়ে আমরা ভূলে যাচ্ছি আমাদের আপন সত্তাকে। ভূলে যাচ্ছি কে আমি কি আমাদের পরিচয়।

বাঙালীর ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখতে আজ কাশিয়ানী উপজেলার হাতিয়াড়া ইউনিয়নের রাহুথর গ্রামের বটতলা ক্লাবের উদ্যোগে এই ঐতিহ্যবাহী বাউল গানের আয়োজন করা হয়।

উক্ত বাউল গানে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার  বাবু গোপীনাথ কানজিলাল, মহিলা ওয়ার্ড মেম্বার  চন্দ্রা সিকদার, ওয়ার্ড মেম্বার সমীর বর, রাহুথর বটতলা ক্লাবের সভাপতি  উজ্জল বিশ্বাস, রাহুথর বটতলা ক্লাবের সাধারন সম্পাদক  মহানন্দ বালা এ ছাড়া স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ বাউল গান শুনতে আসা প্রায় এক সহস্রাধিক শ্রোতাদর্শক।

একে একে বাউল গান পরিবেশন করে শ্রোতাদের সুরের স্রোতে ভাসিয়ে নিয়ে যান মাদারীপুর হতে আসা পূর্নদাস বাউল, যশোর হতে আসা লিটন সরকার, কদমবাড়ী হতে আসা খোকন বাউল ও স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ।

আজকের এই বাউল গান এর আয়োজক কমিটির সভাপতি  উজ্জল বিশ্বাস বলেন, আমরা বাঙালী। আমরা গানকে ভালোবাসি। মাছ কে যেমন জল থেকে আলাদা করলে বাঁচতে পারে না তেমনি আমাদের এই ঐতিহ্যবাহী মাটির গান ভালোবাসার গান ভালোলাগার গানগুলো হারিয়ে গেলে আমরা ও বাঙালী হিসেবে আমাদের অস্তিত্ব হারিয়ে ফেলবো। তাই এখন থেকে ই আমাদের পূর্ব পুরুষগনদের রেখে যাওয়া ঐতিহ্য গুলোকে রক্ষা করতে সবাই কে এগিয়ে আসতে হবে।

নববর্ষ উপলক্ষে আজকের এই ঐতিহ্যবাহী বাউল গান সন্ধ্যা ৭ টা হতে শুরু হয়ে রাত ১২ টার দিকে শেষ হয়।

Top