চৌহাট্টায় কোটা সংস্কার আন্দোলন অব্যাহত

received_2065211923722259.jpeg

তাইবুর রহমান সিলেট প্রতিনিধি ::
সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতীর সংস্কার দাবিতে আন্দোলনরত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সিলেট নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে । তাদের অবরোধে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে যানবাহন আটকা পড়েছে। দুপুর পৌণে ১২টার দিকে চৌহাট্টা এলাকায় সিলেটের জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমানের গাড়িও আটকা পড়েছিল বলে জানা গেছে।

এসময় তিনি আন্দোলনকারীদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন। এক পর্যায়ে আন্দোলনকারীদের দাবির মুখে তিনি লিখিতভাবেও তাদের দাবির প্রতি সমর্থন জানান। আন্দোলনকারীরা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সাথে অবস্থান কর্মসূচি তুলে নেয়ার ব্যাপারে সিলেট মহানগরীর কোতোয়ালি থানার এসি গোলাম দস্তগীর, ওসি গৌছুল হোসেনের আলাপ-আলোচনা চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আলাপ-আলোচনা এক পর্যায়ে বাক-বিতন্ডায় রুপ নিয়েছে। পুলিশ অবস্থান কর্মসূচি তুলে নিতে চাপ অব্যাহত রেখেছে। তবে আন্দোলনকারীরা তা পাত্তা দিচ্ছেননা।

পুলিশের অবস্থান বিবেচনা করে তারা অ্যাকশনে যেতে পারেন বলে মনে হচ্ছে। পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে তারা যখন-তখন অ্যাকশনে নামতে প্রস্তুত।

বর্তমানে রাস্তার চারাদিকে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়েছে।

এর আগে সকাল থেকে ‘দে দে চাকরি দে, নইলে মোদের বুলেট দে’, ‘কোটা পদ্ধতির সংস্কার চাই’, ‘দেবো, দেবো, রক্ত দেবো, রক্ত দিয়ে সফল হবো’ ইত্যাদি শ্লোগান দিতে দিতে নগরীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যায় ও কলেজ থেকে শিক্ষার্থীরা সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদমিনারের সামনে জড়ো হন।

সকাল ১১টার দিকে তারা চৌহাট্টা পয়েন্টে অবস্থান গ্রহন করেন। কত সময় তারা সেখানে থাকবেন তা জানা যায়নি।

তবে এ রতবে এ রিপোর্ট লেখার সময় (দুপুর ১২টা) পর্যন্ত সেখানে দলে দলে আন্দোলনকারীরা যোগদান করছেন।

বেলা ২টার দিকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা চৌহাট্টা পয়েন্টে এসে যোগদান করবেন।

আন্দোলনকারীরা কোটা পদ্ধতি সংস্কার দাবির পাশাপাশি আটক আন্দোলনকারীদের দ্রুত মুক্তি ও পুলিশী নির্যাতনে আহতদের সরকারি খরছে চিকিৎসার দাবিও জানিয়ে যাচ্ছেন।

Top