কুশিয়ারা নদীতে বর্ষা মৌসুমে রানীগঞ্জ ফেরীতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গাড়ী চলাচল করতে হচ্ছ

received_2249694981924260.jpeg

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে কুশিয়ারা নদীর উপর দিয়ে চলমান রানীগঞ্জ ফেরীতে একটু বৃষ্টি হলে গাড়ী উঠা নামা করা কষ্ট দায়ক হয়ে যায়।ফেরি লাগানোর গ্যাংঅয়ে ও পল্টুনের বিভিন্ন অংশ জরাজীর্ণ হয়ে গেছে।এছাড়া বর্ষার মৌসুমে রাস্তার সঙ্গে লাগানো গ্যাংঅয়ের উপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করতে হচ্ছে। অনেক সময়ই যানবাহনগুলো স্লিপ করে ফলে বিভিন্ন সময়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েই যাচ্ছে।
সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুনামগঞ্জ জেলা থেকে ঢাকা যাওয়ার সহজ রাস্তা হিসেবে পরিচিত রানীগঞ্জ ফেরী উদ্বোধন করার পর এ অঞ্চলের জন্য নতুন দিগন্তে সূচনা হয়। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সুনামগঞ্জে যাতায়াতের প্রাণ কেন্দ্র হয়ে যায় রানীগঞ্জ ফেরী। এলাকাবাসীর ঢাকায় যাতায়াতে চার ঘন্টা সময়ের সাশ্রয় হয়। কিন্তু ফেরীঘাটের প্লটের গ্যাংঅয়ে সমস্যা থাকায় বিভিন্ন সময় দূঘর্টনা ঘটে আসছে। এ ঘাট দিয়ে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত হাজার হাজার যাত্রী ঝড় বৃষ্টি মাথায় নিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করছে। বর্ষা মৌসুমে আধুনিক যুগেও যোগাযোগ ব্যবস্থার আধুনিকতার কোন ছোঁয়া না পেয়ে দুর্বিসহ জীবনের মৃত্যুভয়ে নিয়ে বাধ্য হয়ে কাজের তাগিদে খর¯্রােতা কুশিয়ারা নদী উপর দিয়ে পারাপার করছে জনসাধারন। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আগত যাত্রীরা কুশিয়ারা নদীর এ ফেরি দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে পল্টুনের গ্যাংঅয়ে অবস্থা দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন তারা। উপজেলার এই জনগুরুত্বপূর্ণ ঘাট দিয়ে নদীপথে শীত মৌসুমে যাতায়াতে তেমন কোন ঝুঁকি না থাকলেও বর্ষা মৌসুমে পল্টুনের গ্যাংঅয়ে সম্যস্যার জন্য প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কুশিয়ারা নদী পাড়ি দিচ্ছে বিভিন্ন উপজেলার হাজারো যাত্রী। যাত্রীরা জানান, ফেরির পরিস্থিতি খুব খারাপ গ্যাংঅয়ে ও পল্টুন গুলো নতুন দিলে ভালো হতো। এছাড়া ফেরির দুই পারের সড়কগুলো সংস্কার করা অতি জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে।
রানীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ীরা জানান,কুশিয়ারা নদীর রানীগঞ্জ ফেরী দিয়ে আমরা বাজারবাসী মালামাল পারাপার করে আসছি। বর্ষা মৌসুমে গাড়ীর ড্রাইভারগন জীবনের ঝুকি নিয়ে ফেরী দিয়ে মাল পার করতে হয়। এর থেকে রেহায় পেতে হলে ফেরী ঘাটতি পুনঃস্থাপন করা জরুরী ও পল্টুনের গ্যাংঅয়ের নতুন দিলে ভালো হতো। এছাড়া ফেরির দুই পারের সড়ক গুলো সংস্কার করা অতি জরুরি হয়ে দাড়িয়েছে।
এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ ম্যাকানিকেল এসও মো.সালাহ উদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটা ঘাটের সমস্যা স্লুপ কম থাকায় গাড়ী উঠতে সমস্যা হচ্ছে। গত দুইদিন আগের আমাদের লোক ফেরী ঘাট পরিদর্শন করে আসছে। এ বিষয়টা দেখছি আসা করি সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।###

Top