গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলায় প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যা।

30221724_2108075056090409_5304171081689464832_n.jpg

প্রসীদ কুমার দাস, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ

গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার পশারগাতী ইউনিয়নের কাওয়ালদিয়া গ্রামে হান্নান শেখের মেয়ে নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া ছাত্রী হিরা মনি (১৪) ও একই গ্রামে বসবাসরত শাহাদত শেখের ছেলে নবম শ্রেনীতে পড়ুয়া ছাত্র লিমন শেখ লাদেন (১৫) বিদ্যালয়ে এক সঙ্গে আসা যাওয়ার সুত্রে উভয়ের মধ্যে প্রেম ভালবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠে। দীর্ঘ দিন সম্পর্ক চলার পরে সম্প্রতি উভয়েরর পরিবারের লোকজন তাদের সম্পর্কের কথা জেনে যায়। তাদের সম্পর্কের কথা জানাজানির পর উভয় পক্ষের অভিবাবকরা তাদের উভয়কে সর্ম্পক থেকে বিরত রাখার জন্য চেষ্টা করে। প্রেমিকের থেকে বিরত রাখার জের ধরে মেয়ের সঙ্গে তার পারিবারিক কলহ সৃষ্টি হয়। উক্ত কলহের জের ধরে শুক্রবার বিকালে হিরা মনি তাদের নিজস্ব বসতঘরের আড়ার সাথে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্নহত্যা করে।

অন্যদিকে গ্রামের লোকজন জানায় প্রেমিকার আত্মহত্যার সংবাদ শুনে প্রেমিক লিমন ঘটনা স্থলে এসে দেখে তার প্রেমিকার নিথর মরাদেহ শুইয়ে রাখা হয়েছে মাটিতে, নিজেকে আর নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে তাৎক্ষনিক লিমন প্রভাকদ্দী গ্রামের একটি মেহগুনী গাছের বাগানে গাছের সঙ্গে রশি ঝুলিয়ে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্নহত্যা করে।

পুলিশ ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে লিমন ও হিরা মনির সর্ম্পক নিয়ে হিরা মনির সাথে তার পরিবারের তর্কবিতর্ক হয়। তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে সবার সাথে অভিমান করে বসে হিরা মনি অভিমানের পালা শেষ করতে না পেরে নিজেদের ঘরের আড়ার সাথে রশি ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করে। উক্ত ঘটনার ভিত্তিতে উভয় পরিবারের অভিভাবকেরা মুকসুদপুর থানায় অপমৃত্যু মামলা করছে।

মুকসুদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ (ওসি)  মোস্তফা কামাল পাশা এর তত্বাবধানে উভয়ের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তর জন্য গোপালগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Top