লোহাগাড়ায় কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে রাস্তা নির্মাণ, এলাকাবাসীর ক্ষোভ

received_345764862578925.jpeg

শাহজাদা মিনহাজ,লোহাগাড়া,(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের তেওয়ারীখিল এলাকায় শত বছরের পুরনো কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর
ভেঙ্গে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে তেওয়ারীখিল এলাকার বিনা হাজীরপাড়া, কামাল উদ্দীন হাজীরপাড়, কানু সিকদার পাড়া, লোকতার বর পাড়া, এই ৪ গ্রামের বাসিন্দাদের শত বছরের পুরনো একমাত্র কবরস্থান হল হানিফার ডেবা, প্রকাশ কবরস্থান্যা মুড়া। ২ এপ্রিল দুপুর ১টায় ইউএনও মাহবুব আলম একদল পুলিশ নিয়ে নিজে উপস্থিত থেকে কবরস্থানের
সীমানা প্রাচীর ভেঙে রাস্তা নির্মাণ করে দেন। এ বিষয়ে স্থানীয় লোকজন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার বরাবরে গত ৩ মার্চ লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসী জানায়, প্রায় ২০ বছর আগে কবরস্থানের পবিত্রতা রক্ষায় কবরস্থানের চতুর্দিকে দেয়াল ও কাঁটাতার নির্মাণ করেন তারা। কিন্তু স্থানীয় প্রভাবশালী নুরুল আলম নামে এক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে ওই কবরস্থানের ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের চেষ্টা করে আসছে। ইতিমধ্যে তিনি চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার বরাবর স্থানীয় কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলাও করেন। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।

এরই মধ্যে গত সোমবার এলাকার কাউকে কিছু না জানিয়ে দুপুর ১টার দিকে ইউএনও মাহবুব আলম পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে রাস্তা নির্মাণ করে দেন। এ বিষয়ে এলাকাবাসী বাধা দিতে আসলে ইউএনও মাহবুব আলম বিভিন্ন হুমকি ধমকি দেন।

পদুয়া ইউপি চেয়ারম্যান জহির উদ্দীন বলেন, শুধুমাত্র একটি বাড়ী তাও তাদের চলাচলের জন্য বিকল্প রাস্তা আছে, কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে নতুন করে রাস্তা নির্মাণের কোন প্রয়োজন নেই।

এ বিষয়ে জনতে চাইলে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার
মাহবুব আলম বলেন,আগে ভালো করে তদন্ত করে তারপর তথ্য জানার চেষ্টা করেন। কবরস্থানে কোনো কবর দেখেছি কিনা তাও জিজ্ঞেস করেন।

এই নিয়ে এলাকাজুড়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করতেছে।

Top