অানোয়ারায় অর্ধ লক্ষ লোকের যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম হল কৃষি জমি

29663563_1823332161301153_191050799_n.jpg

 ডি এইচ মনসুর, স্টাফ রিপোর্টার :

অানোয়ারা উজেলার রায়পুর ইউনিয়নের খোদ্দ গহিরা, বার অাউলিয়া , তেলি পাড়া, গহিরা সহ প্রায় অর্ধ লক্ষ মানুষের যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম হল কৃষি জমি। স্কুলের শিক্ষির্থীরা শীত মৌসুম এলেই খুশিতে অার্থহারা হয়, কেননা বর্ষা মৌসুমে এই এলাকার যাতায়তের অন্যতম মাধ্যম হল নদী পথ, তাই শীত মৌসুমে এলেই কৃষি জমির মধ্যে দিয়ে গাড়ী চালাচাল করে। শীত এলেই গহিরার মানুষের মুখে হাসি ফুঠে।শীতকালকে জীবনের শ্রেষ্ঠ সময় হিসেবে অভিহিত করেছেন আনোয়ারা উপজেলার ৩ নং রায়পুর ইউনিয়নের ঘাঠকূল দক্ষিণ গহিরা, বার আউলিয়ার জনসাধারণ ।

কিন্তু বর্ষাকাল এলেই এসব এলাকাবাসীর দুঃখ-দূর্দশার সীমা থাকেনা। তখন সবাইকে নদীপথকে একমাত্র যোগাযোগব্যবস্থা হিসেবে ব্যবহার করতে হয়।স্কুল-কলেজ,মাদ্রাসা,বিশ্ববিদ্যালয়গামী সকল ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনে নেমে আসে চরম দূর্ভোগ। জরুরী বিত্ততে প্রসুতি রোগীদের কষ্টের সীমা থাকে না। বর্তমান সরকার উন্নয়নের সরকার।ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য কাজ করে যাচ্ছেন। গহিরায় এখন কাজ চলছে ।

ঠিকাদার বলেছেন,বর্ষার আগে আমাদের কাজ শেষ হয়ে যাবে। এলাকাবাসীর প্রশ্ন, বর্ষার আগে কাজ শেষ হবে না হলে তাদের অাগের মত কষ্টি ভোগ করতে হবে। ফকির হাট এলার বাসিন্দা ডা: সাহাব উদ্দীন বলেন, কাজ শুরু হয়েছে গত ৩ মাসে আগে,এখনো কাজের উন্নতি কিছুই দেখা যাচ্ছে না। বর্ষার আগেই কাজ শেষ না হলেই অামাদের কষ্টের সীমা থাকবেন।

Top