এরাও পারে দেশ ও জাতিকে এগিয়ে নিতে ! নাইক্ষ্যংছড়িতে প্রতিবন্ধী আলাউদ্দিন এখন স্বাবলম্বী

IMG_20180322_110616320.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী, নাইক্ষ্যংছড়ি (বান্দরবান)থেকেঃঃ 

প্রতিবন্ধীরা দেশ ও জাতীর বোঝা নয়। প্রতিবন্ধীরা ও পারে দেশ ও জাতীকে এগিয়ে নিয়ে যেতে। যার চাক্ষুষ প্রমান করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে দেখিয়ে দিলেন বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলার বাইশারী বাজারের হোটেল ব্যাবসায়ী মোঃ আলাউদ্দিন। যিনি জম্ম থেকে প্রতিবন্ধী। তার এক পাও নাই। তারপরও জীবন যুদ্ধে থেমে নেই আলাউদ্দিন। সংসারে তিন ভাই বোনের মধ্যে সে সবার বড়। ছোট বেলায় অন্যান্য শিশুদের মত স্কুলেও পড়েছেন। তবে সংসারের অভাব অনটনের কারনে প্রাইমারী স্কুল পর্যন্ত পড়ার সুযোগ হয়েছে। আর এগোতে পারেনি। তবে সে সাহস ও মনোবল হারায়নি, অন্য দশজনের মত বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখেন। সেই স্বপ্ন অবশেষে বাস্তবায়ন ও করতে সক্ষম হয়েছে।
তার জম্মভূমি ফেনী জেলায় হলেও বর্তমানে বসবাস করেন স্থায়ীভাবে বান্দরবানের বাইশারীতে। সে তিন কন্যা সন্তানের জনক। ছোট বেলা থেকে তার নিজ এলাকায় পড়ালেখার পাশাপাশি হোটেলে বিভিন্ন ধরনের খাবার তৈরী, নাস্তা তৈরীর কাজ শিখেন। তাই বসে না থেকে তার বাস্তব অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে বিভিন্ন এনজিও সংস্থা থেকে লোন নিয়ে প্রথমে এক লাখ টাকা দিয়ে হোটেল ব্যাবসা শুরু করেন।
গতকাল এই প্রতিবেদক সহ বাইশারী বাজারের আলাউদ্দিন এর হাতে গড়া হোটেলে একদল সংবাদ কর্মী খাবার খেতে গিয়ে এসব তথ্য বেরিয়ে আসে।
কথোপকথনের এক পর্যায়ে হোটেল মালিক আলাউদ্দিন বলেন, তার স্ত্রীর মাধ্যমে স্থানীয় দুইটি এন,জিও সংস্থা থেকে লোন নিয়ে হোটেল ব্যবসায় নামেন দীর্ঘ দশ বছর আগে। তার হোটেলে বর্তমানে আটজন কর্মচারী রয়েছে। প্রতিদিন তাদের বেতন দিতে হয় তিন হাজার টাকা। প্রতিদিন বেচা বিক্রি ও হয় আট থেকে দশ হাজার টাকা। মা বাবা ভাই বোনদের পুরো খরচ সে নিজেই বহন করে বলে জানান। তার তিন কন্যা সন্তানকেও কেজি স্কুলে পড়ান। এখন এই ব্যবসা দিয়ে গরু, ছাগল, হাস মুরগী এবং সামান্য জায়গা জমিও ক্রয় করেছেন এবং মাথা গোঁজানোর জন্য একটি ঘরও তৈরী করেছেন।
তিনি এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপ চারিতায় বলেন, যে প্রতিবন্ধী আলাউদ্দিন আজ মানুষের দূয়ারে ভিক্ষা করার কথা। সেই আলাউদ্দিন আজ অন্য দশজনের মত সংসারে ভালই আছেন। এতে আলাউদ্দিন প্রমান করে দেখিয়ে দিলেন প্রতিবন্ধীরা দেশ ও জাতীর জন্য বোঝা নয়। প্রতিবন্ধীরাও পারে দেশ ও জাতিকে আরো একধাপ নিতে। সর্বশেষ দীর্ঘ নিঃস্বাস ছেড়ে বলেন সরকার প্রতিবন্ধীদের ভাতা দিলে ও সে এখনো পর্যন্ত কোন ধরনের সহযোগিতা পাইনি। তবে সরকারের পক্ষ থেকে কিছু সহযোগিতা পেলে তিনি আরো এগিয়ে যাবেন বলে জানান।

Top